Breaking News
Home / ধর্ম / ট্রাম্পের জেরুজালেম সংক্রান্ত ঘোষণার প্রতিবাদে ঢাকায় ইসলামী সংগঠনের বিক্ষোভ

ট্রাম্পের জেরুজালেম সংক্রান্ত ঘোষণার প্রতিবাদে ঢাকায় ইসলামী সংগঠনের বিক্ষোভ

ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরাঈলের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃতি দেবার ঘোষণার প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইসলামপন্থী সংগঠন।

ট্রাম্পের জেরুসালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণায় ঢাকায় ইসলামপন্থী সংগঠনের বিক্ষোভ এর ছবি ফলাফল

গতকাল জুম্মার খুতবায় বাংলাদেশের বিভিন্ন মসজিদে ইমামরা এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছেন। তাদের সাথে একমত পোষণ করেছেন আগত মুসল্লীরা।

সবচেয়ে বড় প্রতিবাদ হয়েছে ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদের বাইরে জুম্মার নামাজের পর।

ঢাকায় ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত গতকাল বায়তুল মোকাররম মসজিদে জুম্মার নামাজে অংশ নেন। তখন খুৎবায় ফিলিস্তিনের প্রতি সংহতি প্রকাশ করা হয়েছে।

নামাজ শেষে বিভিন্ন ইসলামপন্থী সংগঠন ট্রাম্পের ঘোষণার প্রতিবাদে মিছিল সমাবেশ করে। এগুলোতে ট্রাম্প ও ইসরাঈল বিরোধী নানা শ্লোগান দেয়া হয়।

হেফাজতে ইসলাম তাদের সমাবেশ থেকে আগামী বুধবার ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও এবং স্মারকলিপি দেবার কর্মসূচি ঘোষণা করে।

ফিলিস্তিনের প্রতি সমর্থন এবং সহমর্মিতা বাংলাদেশে বেশ পুরেনো। বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই স্বাধীন ফিলিস্তিনের প্রতি অকুন্ঠ সমর্থন রয়েছে। এর একটি বড় কারণ হচ্ছে, বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ ফিলিস্তিনের সংগ্রামকে মুসলমানদের সংগ্রাম হিসেবেই দেখে।

গতকালের সমাবেশে অংশ নেয়া অনেকেই বলেছেন, জেরুসালেমকে ইসরাঈলের রাজধানী ঘোষণার মাধ্যমে ট্রাম্প তার ইসলামবিদ্বেষী মনোভাবের বহি:প্রকাশ ঘটিয়েছেন।

সমাবেশ আসা একজন বলেন: এটা ট্রাম্পের একটা পাগলামি বলা যায়।

আরেকজন বলেন: রাষ্ট্রপতি হবার আগেই সে (ট্রাম্প) এরকম এজেন্ডা নিয়েই আসছে যে ইসলামকে এ রকম একটা অবস্থায় ফেলবে।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা বলেন: ‘জেরুসালেম মুসলিমদের জন্যে একটি পবিত্র জায়গা। কারণ, এখানে আল-আকসা মসজিদ অবস্থিত।’ ট্রাম্পের ঘোষণাকে ”হঠকারী” বলেও মন্তব্য করেন তারা।

জেরুসালেমকে রাজধানী ঘোষণা করার বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন: ডোনাল্ড ট্রাম্পের এ ঘোষণা মুসলিম বিশ্বে গ্রহণযোগ্য নয়। ফিলিস্তিন-ইসরাঈল বিষয়ে জাতিসংঘের প্রস্তাবকে অগ্রাহ্য করা কেউ মেনে নেবে না।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবারই এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ১৯৬৭ সালের সীমান্তের ভিত্তিতে পূর্ব জেরুসালেমকে রাজধানীর মাধ্যমে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পক্ষে বাংলাদেশের অবস্থান।

বাংলাদেশ সরকার যেখানে এর প্রতিবাদ করছে, সেখানে রাস্তায় বিক্ষোভ করে কী লাভ হবে?

এমন প্রশ্নে সমাবেশে যোগ দেয়া একজন বলেন: এ প্রতিবাদের মধ্যে দিয়ে মুসলমান বিশ্বে ঐক্য সৃষ্টি হইতেছে। ফিলিস্তিনের ভাইদের আমরা উৎসাহ দিচ্ছি। আমরা দূরে থেকে হলেও তাদের সাথে আছি।

বিক্ষোভকারীরা মনে করেন, জেরুসালেমকে ইসরাঈলের রাজধানী ঘোষণা করে ট্রাম্প পুরো বিশ্বকে অস্থিতিশীলতার দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। বিবিসি।

About superadmin

Check Also

বিশ্বের কোনো শক্তিই রাম মন্দির নির্মাণে বাধা দিতে পারবে না: বিনয় কাটিয়ার

ভারতে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি’র রাজ্যসভার সদস্য বিনয় কাটিয়ার বলেছেন: রাম মন্দির নির্মাণে বিশ্বের কোনো শক্তিই বাধা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *