Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করবে গুয়াতেমালা

জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করবে গুয়াতেমালা

জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে নেওয়ার ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে সারাবিশ্ব সমালোচনা করলেও উল্টো পথে হেটেছে মধ্য আমেরিকার দেশ গুয়াতেমালা। দেশটির রাষ্ট্রপতি জিমি মোরালস জানিয়েছেন, শিগগিরেই ইসরাঈলে তাদের দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করা হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতোমধ্যে দূতাবাস সরানোর নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন জিমি মোরালস। ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি জানান, ইসরাঈলী প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে রবিবার কথা বলার পর এ সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে জেরুজালেমকে ইসরাঈলী রাজধানীর স্বীকৃতি দেন ট্রাম্প। এক ভাষণে তিনি ঘোষণা করেন, খুব শিগগিরই মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে সরিয়ে জেরুজালেমে নেয়া হবে। এর প্রতিক্রিয়ায় সারা বিশ্বে নিন্দার ঝড় ওঠে। উদ্বেগ প্রকাশ করে জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মতো জোট। মুসলিম দেশগুলোর সবচেয়ে বড় জোট ওআইসি ট্রাম্পের ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় পূর্ব জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী স্বীকৃতি দেয়। ঐ ঘোষণার প্রতিবাদে এখনো জ্বলছে পশ্চিমতীর, গাজা উপত্যকা আর পূর্ব জেরুজালেম। এর বিপরীতে অব্যাহত রয়েছে ফিলিস্তিনী স্বাধীনতাকামীদের বিরুদ্ধে ইসরাঈলী দমনপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞ।

প্রায় সব দেশ ট্রাম্পের বিপক্ষে গেলেও গুয়াতেমালা সমর্থন জানিয়েছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইসরাঈলের দখলকে সমর্থন করে না। মুসলিম, খৃষ্টান ও ইহুদি তিন ধর্মের জন্যই পবিত্র স্থান জেরুজালেম। এ স্থানকে ঘিরে প্রায়শই সহিংসতার ঘটনা ঘটে ইসরাঈল-ফিলিস্তিনের মাঝে। তাই, শান্তি প্রক্রিয়ায় শহরটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

গুয়াতেমালার সঙ্গে মধ্য আমেরিকার আরেক দেশ হুন্ডুরাসও যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতিকে সমর্থন দিয়েছিলো। রয়টার্স।

About superadmin

Check Also

মার্কিনবিরোধী অবস্থানে কোনো পরিবর্তন আসবে না: মুক্তাদা আস-সাদর

ইরাকের নির্বাচনে বিজয়ী জোটের প্রধান মুক্তাদা সাদর বলেছেন: মার্কিনবিরোধী অবস্থানে তিনি অটল থাকবেন এবং এ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *