Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন যুদ্ধ জাহাজ! ক্ষুব্ধ চীন

দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন যুদ্ধ জাহাজ! ক্ষুব্ধ চীন

নিজস্ব সার্বভৌমত্বের সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার শপথ নিয়েছে চীন। মার্কিন নৌবাহিনীর একটি ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী জাহাজ দক্ষিণ চীন সাগরের বিবাদপূর্ণ শোয়াল এলাকার কাছ দিয়ে ভেসে যাওয়ার পর এমন প্রত্যয় জানিয়েছে বেইজিং। চীন বলছে, ইউএসএস হপার যুদ্ধজাহাজটি বিবাদপূর্ণ পানিসীমার কাছ দিয়ে ভেসে যাওয়ায় দেশটির সার্বভৌমত্ব ক্ষুণ্ন হয়েছে। আর মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন সরাসরি কিছু না বলে দাবি করেছে, এ ধরনের অভিযান তাদের রুটিন কার্যক্রমের অংশ।

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী জাহাজ ইউএসএস হপারকে দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের দাবিকৃত এলাকা শোয়ালের কাছ দিয়ে ভেসে যেতে দেখা গেছে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দাবি, ইউএসএস হপার হুয়ানগিয়ান আইল্যান্ডের ১২ নটিক্যাল মাইলের ভেতরে অবস্থান করছিলো। দু’ মার্কিন কর্মকর্তাও খবরটি নিশ্চিত করেছেন। হুয়ানগিয়ান আইল্যান্ডই স্কারবোরো শোয়াল নামে পরিচিত। ফিলিপাইনও এ এলাকাটির দাবি করে থাকে।

দু’ মার্কিন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে দাবি করেছেন, আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে এ টহল চালানো হয়েছে এবং কোথাও না থেমে জাহাজটি ঐ এলাকা অতিক্রম করে গেছে।

মার্কিন সেনাবাহিনীর দাবি, তারা মিত্রদের এলাকাসহ বিশ্বজুড়ে অবাধ নৌযাত্রা সংক্রান্ত কার্যক্রম চালিয়ে থাকে এবং এক্ষেত্রে রাজনৈতিক বিবেচনাবোধ থাকে না। পেন্টাগন এ টহলের ব্যাপারে সরাসরি মন্তব্য না করলেও তাদের দাবি, এ ধরনের অভিযান রুটিন কার্যক্রমেরই অংশ।

পেন্টাগনের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল ক্রিস্টোফার লোগান বলেন: আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সব কার্যক্রম পরিচালিত হয় এবং এর মধ্য দিয়ে এটাই পরিষ্কার হয় যে আন্তর্জাতিক আইন যেখানে অনুমোদন করে, সেসব এলাকায় যুক্তরাষ্ট্র বিমান উড়ায়, জাহাজ ভাসায় এবং কার্যক্রম পরিচালনা করে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং দাবি করেন, ইউএসএস হপার চীনের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা স্বার্থকে লঙ্ঘন করেছে এবং চীনা জাহাজ ও জনগণের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলেছে। লু বলেন, অবাধ নৌপথের অজুহাতে সার্বভৌমত্বকে আঘাত করার প্রচেষ্টার দৃঢ় বিরোধিতা করছে চীন। যুক্তরাষ্ট্রকে ভুল শোধরানোরও আহ্বান জানিয়েছে দেশটি। গার্ডিয়ান।

About superadmin

Check Also

ট্রাম্প কর বাড়ানোয় কী বললেন এরদোগান-পুতিন?

তুরস্কের দু’ পণ্যে শুল্ক বাড়িয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এখন থেকে তুরস্কের আমদানি করা অ্যালুমিনিয়াম ও ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *