Breaking News
Home / জাতীয় / লাশ শনাক্ত করা কঠিন হওয়ায় তা দেশে আনতে সময় লাগবে

লাশ শনাক্ত করা কঠিন হওয়ায় তা দেশে আনতে সময় লাগবে

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশী নাগরিকদের লাশ দ্রুত দেশে ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

কাঠমান্ডু থেকে বিবিসি বাংলার আবুল কালাম আযাদ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসক প্রমোদ শ্রেষ্ঠের বরাতে জানিয়েছেন, পরিচয় সুনিশ্চিত হয়েই তারা লাশ হস্তান্তর করতে চান। লাশের পরিচয় জানতে চারটি দল কাজ করছে। এর মাঝে দু’টি দল ময়না তদন্ত করছে। একটি দল লাশের নানা স্যাম্পল নিয়ে সেখান থেকে পরিচয় জানার চেষ্টা করছে আর অন্যটি পরিবারের স্বজনদের কাছ থেকে বিভিন্ন তথ্য নিয়ে নিশ্চিত হবার চেষ্টা করছে। এ চার দল সমবেতভাবে একটি লাশের পরিচয় নিশ্চিত করবে। এ প্রক্রিয়ায়ই প্রতিটি লাশের ডিএনএ স্যাম্পল সংগ্রহ করা হচ্ছে বলেও জানানো হচ্ছে। মঙ্গলবার ১১ টি লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে। কিন্তু তারা কারা, তা নিশ্চিত করা যায়নি। ৪৯টি লাশের ময়না তদন্ত চলবে আরও কয়েকদিন। কর্তৃপক্ষ বলছেন, পরিচয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কাউকে স্বজনের কাছে হস্তান্তর কিংবা নিজ দেশে ফেরত পাঠানো সম্ভব নয়। এ প্রক্রিয়ার পরেও যদি পরিচয় নিশ্চিত না হয়, তাহলে শেষ কাজটি হবে ডিএনএ পরীক্ষা করা।

এখন লাশের পরিচয় নিশ্চিত করতে কতোদিন লাগবে, তা কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করে বলতে পারছে না। তবে অন্তত তিন-চারদিন লাগবে ময়না তদন্তের জন্যই। প্রাথমিক তদন্তে পরিচয় নিশ্চিত হতেই এক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে কাঠমাণ্ডুতে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকেও জানানো হয়েছে আইনি জটিলতার কারণে নেপাল থেকে লাশ নিতে কিছুটা সময় লাগবে। কোনো মরদেহ ডিএনএ পর্যন্ত গড়ালে, সেটি আরও সময়সাপেক্ষ হবে বলেও জানিয়েছে কাঠমান্ডুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

জানা যাচ্ছে, কিছু লাশ এমনভাবে পুড়ে গেছে যে, তাতে কারও কারও ক্ষেত্রে পরিচয় নিশ্চিত করাটা জটিল এবং সময় সাপেক্ষ হতে পারে। বিবিসি।

About superadmin

Check Also

খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে ফের শুনানি চলছে

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন প্রশ্নে আবার শুনানি শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *