Home / রাজনীতি / একদলীয় ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করা হয়েছে: ফখরুল

একদলীয় ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করা হয়েছে: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন: অবৈধ অগণতান্ত্রিক সরকার একদলীয় ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করে রেখেছে।

আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালী শুরুর আগে মির্জা ফখরুল আরো বলেন: আমরা শান্তিপূর্ণভাবে আমাদের শোভাযাত্রা করবো। এর মাধ্যমে প্রমাণ করবো, দেশের মানুষ মুক্তি চায়, তারা খালেদা জিয়ার মুক্তি চায়, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বfচন চায়।

এ সময়, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন: আমাদের এ শোভাযাত্রা করার অনুমতি দেয়া হয়েছে  সংক্ষিপ্ত সময় বেঁধে দিয়ে। তা যে কোনো গণতান্ত্রিক দেশের মানুষের জন্য কষ্টকর। দেশ স্বাধীন হলেও দেশের মানুষ স্বাধীনতার স্বাদ পাচ্ছে না।

নজরুল ইসলাম খান বলেন: আজ যারা ক্ষমতায় আছে, তারা স্বাধীনতার পর,  এ দেশে একবার একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। আজ আবারও তারা নতুন করে একদলীয় শাসন কায়েম করছে। এরপর র‌্যালীটি নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় এবং শান্তিগর হয়ে মালিবাগ মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।

এ প্রসঙ্গে বিএনপি নেতা  বরকত উল্লাহ বুলু রেডিও তেহরানকেও বলেন: আজ তাদের শান্তিপুর্ন শোভাযাত্রা দেখে সরকার হয়ত তাদের ২৯শে মার্চ  সোহরাওয়ার্দী উদ্দ্যানে সমাবেশ করার ব্যাপারে অনুমতি দেবে। তবে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন: আগামী ২৯শে মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জনসভার অনুমতি দেয়ার দায়িত্ব ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের (ডিএমপি)।

আজ জনসভার অনুমতির জন্য সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল। তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে মন্ত্রী  সাংবাদিকদের বলেন: বিএনপির নেতারা বলেছেন ২৯শে মার্চ জনসভার অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। আমি বলেছি কী কারণে দেয়া হচ্ছে না – নিশ্চয়ই কোনো কারণ সেখানে থাকতে পারে। তার পরের দিন কিংবা যে কোনো দিন আপনাকে দেবে, যেদিন কোনো ধরনের অসুবিধা না থাকে।

এদিকে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা বাড়াতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আপিল হাইকোর্ট গ্রহণ করবে কিনা – সে বিষয়ে শুনানির জন্য আগামীকাল ধার্য করা হয়েছে। আজ দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান সাজা বৃদ্ধি সংক্রান্ত বিষয়টি আদালতে উপস্থাপন করার পর, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ২৫শে মার্চ দুদকের এ আইনজীবী খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধির জন্য আদালতে আপিল করেন। পার্সটুডে।

About superadmin

Check Also

দেশ আওয়ামী লীগ না, অন্য কেউ চালায়: ফখরুল

দেশ আওয়ামী লীগ না, অন্য কেউ চালায়, এমন প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *