Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করেই এস-৪০০ কিনবে তুরস্ক

মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করেই এস-৪০০ কিনবে তুরস্ক

রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্রয় সংক্রান্ত চুক্তি থেকে তুরস্ক সরে আসবে না বলে জানিয়েছেন, তুর্কি রাষ্ট্রপতির মুখপাত্র ইবরাহিম কালিন। যুক্তরাষ্ট্র তুরস্ককে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র না কিনতে হুমকি দিয়েছে।

ইবরাহিম বলেন: একটি সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে তুরস্কের নিজের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা রয়েছে। তুরস্ক নিজেই তাদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত ‍নেবে। কার কাছ থেকে কী ধরণের প্রতিরক্ষা গ্রহণ করবে – তার সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার শুধুই তুরস্কের নিজস্ব ব্যাপার। যুক্তরাষ্ট্রের সাথে তুর্কি সরকারের সুসম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু তুরস্ক কারোর সাথে এমন কোনো চুক্তি করেনি – যাতে করে তুরস্কের সার্বভৌমত্বের উপর বাধা আসবে। যুক্তরাষ্ট্রের এ নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি নিয়ে দু’ দেশের সম্পর্কের মাঝে প্রভাব পড়বে না। এমন কোন ঘটনা ঘটলে, তুরস্কও যথাযথ পদক্ষেপ নেবে। এখান থেকে ফিরে যাওয়ার কোনো উপায় নেই। ইতোমধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়ে গেছে। এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র আগামী বছর আসবে। প্রযুক্তি আমদানিও অন্যতম একটি বিষয়। আমরা শুধু প্রযুক্তি অর্জন বা ব্যবহার নয়, বরং আমরা এগুলো উৎপাদনও করতে চাই। তুরস্ক প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র বা অন্যান্য পশ্চিমা প্রযুক্তির ব্যবস্থা নিতে পারে – যদি তারা প্রয়োজনীয় পরিবেশ তৈরি করে।

এ সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষ থেকে আঙ্কারাকে হুমকি দেয়া হয়েছে যে, তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র কেনার চুক্তি থেকে ফিরে না এলে, যুক্তরাষ্ট্র তুরস্ককে লকহেড মার্টিন এফ-৩৫ ফাইটার জেট চুক্তি থেকে সরে আসবে।

গত বছর ডিসেম্বরে তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্রয়ের জন্য সরকারিভাবে ২.৫ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর করে। এস-৪০০ রাশিয়ার তৈরি বতর্মানে সর্বাধুনিক অন্যতম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। ন্যাটো দেশগুলোর মাঝে প্রথম তুরস্কই এ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পেতে যাচ্ছে।

এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে আঙ্কারা দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরি করতে যাচ্ছে। তুরস্কের পাশের দু’ সীমান্তবর্তী দেশ ইরাক ও সিরিয়ার যুদ্ধাবস্থা এবং পিকেকে ও দায়েশের সাথে বিভিন্ন সংঘর্ষ থেকে দেশকে সুরক্ষার জন্য তুরস্ক সর্বাধুনিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে।

এছাড়াও, তুরস্ক তাদের নিজস্ব প্রযুক্তিতে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণ করতে চায়। এজন্য তারা বিভিন্ন দেশের সাথে নির্মাণ প্রযুক্তির কৌশল বিনিময় করতে চায়। এস-৪০০ ব্যবস্থাটির সম্পর্কে ২০০৭ সালে প্রথম জানা যায়। এটা রাশিয়ার সর্বাধুনিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। রাশিয়া এখন পর্যন্ত শুধু চীন এবং ভারতের কাছে এ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিক্রি করেছে। সব কিছু ঠিক থাকলে, তুরস্ক ২০২০ সালে এস-৪০০ পেতে পরে। সূত্র: দৈনিক সাবাহ।

About superadmin

Check Also

এরদোগান আবারো একে পার্টির চেয়ারম্যান হলেন

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ আবারো এরদোগান দেশটির ক্ষমতাসীন দল জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একে পার্টি) ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *